শিক্ষাক্রমের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য নিরূপণ [Identification of Curricular Goal and Objectives

ভূমিকা

শিক্ষাকে জাতির আশা-আকাংক্ষা ও লক্ষ্য এবং জাতীয় একটি শক্তিশালি হাতিয়ার হিসেবে
বিবেচনা করা হয়। তাই দেশের সকল জনগণের চাহিদা, নানাবিধ সমস্যা সমাধানের যোগ্যতা
ভবিষ্যতের কাক্সিক্ষত সমাজ ইত্যাদি শিক্ষার মাধ্যমে নিশ্চিত হয়। এছাড়া সামাজিক
অথ ও রাজনৈতিক আনয়নের ষ্টৃ হাতিয়ার হল শিক্ষা। উত্তমরূপে একটি
শিক্ষাক্রমের মাধ্যমে শিক্ষাথ লাগসই জ্ঞান, দক্ষতা, দৃষ্টিভঙ্গি, মূল্যবোধ নিশ্চিত হলে
জাতির অভীষ্ট লক্ষ্য ভিত মজবুত হয়। ফলে জাতীয় গতি হয়। উপরিউক্ত চাহিদার
আরোপ করে দেশের ও দূর ভবিষ্যতের লক্ষ্য সামনে রেখে শিক্ষাক্রমের উদ্দেশ্য
করতে হয়।


শিক্ষাক্রমের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য নিরূপণে যে সব বিষয়ের দিতে হয় সেগুলো হল- লক্ষ্য ও
উদ্দেশ্যের উৎস, লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য নিরূপণে পারিভাষিক শব্দ, উদ্দেশ্য ও বিভাগ, উদ্দেশ্য নিরূপণে বিবেচ্য
দিক ও এবং উদ্দেশ্য পদ্ধতি।
উপরে বিষয়গুলোকে ইউনিটে ৫টি পাঠের মাধ্যমে করা হয়েছে। পাঠগুলো হচ্ছে-

শিক্ষাক্রমের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য নিরূপণ

পাঠ- ৪.১: শিক্ষার লক্ষ্য ও উদ্দেশ্যের উৎস

পাঠ- ৪.২: শিক্ষার উদ্দেশ্যের

পাঠ- ৪.৩: শিক্ষাক্রমের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য নিরুপণে বিবেচ্য দিক

পাঠ- ৪.৪: শিক্ষাক্রমের উদ্দেশ্য নিরূপণের

পাঠ- ৪.৫: শিক্ষাক্রমের উদ্দেশ্য পদ্ধতি

পাঠ- ৪.১: শিক্ষার লক্ষ্য ও উদ্দেশ্যের উৎস

[Sources of Educational Goal and Objectives]

শিক্ষার লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য সবচেয়ে শক্তিশালী মাধ্যমটি হচ্ছে শিক্ষাক্রম। ব্যক্তি, গোষ্ঠী ও সমাজ লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য করার জন্য শিক্ষা জন্ম ও বিকাশ।